1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ছয় দফা দাবীতে সিবিআইইউ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন। ইসলামাবাদে গভীর রাতে সশস্ত্র হামলাঃনগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটের অভিযোগ! পশ্চিম টেকপাড়া সমাজকল্যাণ পরিষদ কর্তৃক শহর পুলিশ ফাঁড়ি কক্সবাজার এর সাথে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঈদগাঁও প্রেস ক্লাবের জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঈদগাঁওতে পরিবেশ আন্দোলনের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা।

বিভিন্ন অনলাইন ও পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ।

  • আপডেট টাইম: Saturday, September 19, 2020
  • 408 বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের নতুন মহাল (ঘোনা পাড়া) গ্রামের বাসিন্দা মনজুর আলমের স্ত্রী ১ সন্তানের জননী রিনা আক্তার ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ির অমানবিক নির্যাতন ও প্রতারণার শিকার, নিরাপত্তাহীনতায় স্বামী শিরোনামে ১৪ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত শীর্ষ সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। উক্ত সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। তা সম্পূর্ণ একটি গল্প সাজিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তার জন্য তিব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আসলে আমার স্বামী মনজুর আলম একজন সন্ত্রাস এবং প্রাতারক। একাধিক বিয়ে করা আর মানুষ মারা তার একমাত্র কাজ। আসল ঘটনা হচ্ছে, প্রায় নয় বছর আগে মনজুর সৌদি আরব থেকে এসে অর্থাৎ ০৫-০৬-২০১১ ইংরেজিতে সে অবিবাহিত বলিয়া ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক আমাকে বিয়ে করেছিল। বিয়ের পর জানতে পারি সে বিবাহিত এবং সৌদি আরবে তার স্ত্রী সন্তান আছে। সে কথা আমার পরিবার জানতে পারলে, আমার শ্বশুর বাড়ীর লোকজন নিয়ে একটি পারিবারিক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, আমার স্বামী মনজুর আলম আমার নামে একটি জমি খরিদ করে নতুন বাড়ী নির্মাণ করে দেবে শর্তে বিয়ের ২ মাস ২২ দিন পর সৌদি আরব চলে যায়। সৌদি আরব থেকে সে কিছু টাকা পাঠালে সে সাথে আমার আব্বার কিছু কষ্টার্জিত টাকাও দিয়ে আমার নিজ নামে ৪ শতক জমি খরিদ করে বাড়ী নির্মাণ করেছি। পরিশেষে ৬ বছর ৩ মাস পর দেশে এসে আবারও ১ মাস ২২ দিন পর সৌদি আরবেে চলে গিয়ে আমাকে ফোন করে বলে, আমার প্রথম স্ত্রী-সন্তান দেশে চলে আসবে তোমার জমি আর বাড়ি আমার নামে লিখে দাও। আমি আমার স্বামীকে জমি ঘর লিখে না দেওয়ায় সে দেশে এসে আমাকে এবং আমার পরিবারের সবাইকে অমানবিক নির্যাতন করে আসছিল। শেষ পর্যন্ত আমি বুঝতে পারি আমাার ঘর ও জমি লিখে নিয়ে আমাকে ডিভোর্স দিয়ে সৌদি আরব চলে যাবে। এ বিষয়ে বাক-বিতন্ডা হলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে আর আমার বাবাকে ঘুষি মেরে দাঁঁত ভেঙে দেয় এবং লোহার রড দিয়ে মারধর করে রক্তাক্ত করিয়া শ্লিলতাহানী করে বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। এর জের ধরে প্রতিশোধ মোলক মানহানি করতে সাংবাদিক ভাইদের ভূল তথ্য দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। এবিষয়ে প্রশাসন এবং এলাকাবাসীকে এই মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। সাথে প্রশাসনের প্রতি আমাদের নিরাপত্তাসহ আসল ঘটনাটি সরেজমিনে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারীঃ
রিনা আকতার পিতা- নুরুল আজিম। উত্তর মাইজ পাড়া,
১ নাম্বার ওয়ার্ড, ঈদগাঁও, কক্সবাজার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme