1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা। হ্নীলার দালাল আবছার রোহিঙ্গা নারীসহ বিমানবন্দরে আটক। জনগণের দুর্ভোগ লাগব করতে দ্রুত টেকসই সড়ক উপহার দিবো -কউক চেয়ারম্যান বিষপানে পুত্রবধূ নাসরিনের আত্মহত্যা সাংসদের ওয়ার্ডের রাস্তার ইট বিক্রি করে দিল মেম্বার! ইসলামবাদে (ব্র্যাক)আইন সহায়তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নুর গংদের দ্বারা শুরু হওয়া ধর্ষণ দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে : আল নাহিয়ান খান জয়

  • আপডেট টাইম: Friday, October 9, 2020
  • 129 বার পড়া হয়েছে

বার্তা ডেস্ক:

ইভটিজিং ও ধর্ষণ ঠেকাতে নেতাকর্মীদের পাহারা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। এ ছাড়া নুর গংদের দ্বারা শুরু হওয়া ধর্ষণ সারাদেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আজ শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে ধর্ষণবিরোধী মিছিল ও সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

জয় বলেন, গত কয়েক দিন ধরে আমরা ধষর্কের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি। এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ১৮ দিন ধরে ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। কিন্তু কই সেই ধর্ষণের মাস্টারমাইন্ড? সেই ধর্ষককে তো এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি? তাহলে আমরা কি ধরে নেবো? তারা কি অনেক পাওয়ারফুল? কখনই না।

নুর-রাশেদের প্রতি ঈঙ্গিত করে লেখক ভট্টাচার্য বলেন, তারা এই (ধর্ষণবিরোধী) আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে চায়, সরকারবিরোধী আন্দোলনে রুপ দিতে চায়। কেন সরকার নিয়ে আপনাদের কী সমস্যা? সবাইকেই তো গ্রেপ্তার করা হয়েছে শুধু মাত্র তাদের এজেন্ডা বাহিনী ছাড়া। তাদের গ্রেপ্তার করুন। তাহলে সব ধর্ষক ভয় পাবে। যে বাবা তার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে সেখানে নৈতিক স্খলন ছাড়া আর কোনো কারণ আছে? 

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আপনার আওতার মধ্যে যদি কোনো মা-বোনকে ধর্ষণ করা হয়, শ্লীলতাহানি বা ইভটিজিং করা হয়, সাথে সাথে তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন। ধর্ষকদের চামড়া দিয়ে ডুগডুগি বাজিয়ে আমরা তাদের শাস্তি নিশ্চিত করবো। 

সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, সারা বাংলাদেশের যেখানেই ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, সবার আগেই ছাত্রলীগ রাজু ভাস্কর্যে প্রতিবাদ করেছে। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলো বাংলাদেশের মেধাবী তরুণ সত্য ইতিহাস বাদ দিয়ে এখন ফেসবুকের ইতিহাস গ্রহণ করেছে। 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme