1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ছয় দফা দাবীতে সিবিআইইউ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন। ইসলামাবাদে গভীর রাতে সশস্ত্র হামলাঃনগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটের অভিযোগ! পশ্চিম টেকপাড়া সমাজকল্যাণ পরিষদ কর্তৃক শহর পুলিশ ফাঁড়ি কক্সবাজার এর সাথে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঈদগাঁও প্রেস ক্লাবের জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঈদগাঁওতে পরিবেশ আন্দোলনের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা।

পোকখালী ভন্ড বৈদ্য সাধন শাহানুরের খপ্পরে পড়ে প্রতারণার শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ

  • আপডেট টাইম: Sunday, December 13, 2020
  • 130 বার পড়া হয়েছে

মোঃ কাওছার ঊদ্দীন শরীফ।

কক্সবাজার সদর উপজেলার পোকখালীতে ভন্ড শাহানুর সাধন বৈদ্যের আবির্ভাব হয়েছে।
তার খপ্পরে পড়ে প্রতারণার শিকার হচ্ছে শতশত – নারী ও পুরুষ। বৃহত্তর ঈদগাঁওসহ জেলার বাইরে ও বিভিন্ন এলাকার লোকজনের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা ।

জানা যায়, কক্সবাজার সদরের পোকখালী ইউনিয়নের হরঘোরা এলাকায় প্রায় ৩০ বছর ধরে বছর বসবাস করে আসছে উত্তরবঙ্গের শাহিনুর।সে রাজমিস্ত্রি থেকে শুরু করে রিকশা-ভ্যান সহ বিভিন্ন কাজ করে জীবন ধারন করে আসলেও শেষ পর্যন্ত সে জীবন জীবিকার জন্য বেছে নেন প্রতারণা ও ভন্ডামীর আশ্রয়। সে এখন বড় সাধক । তার দ্বারা সবকিছুই সম্ভব ।অসম্ভবকে সম্ভব করাই তার। সে ভন্ডামি ও প্রতারণার মাধ্যমে গ্রামের সহজ-সরল মহিলা ও পুরুষদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। প্রতিটি কাজের জন্য সে চুক্তি করে। বান কাটার জন্য ৩হাজার এক টাকা, চুরি মাল উদ্ধারের জন্য ৪ হাজার এক টাকা, স্বামী-স্ত্রীর গরমিল বন্ধে ৫ হাজার এক টাকার চুক্তি করেন। কিন্ত কাজ না হওয়া সত্বে টাকা ফেরত চাইলে তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি দেয় রাজিব বৈদ্য ও তার সহযোগী উজ্জল।

স্থানীয় সেলিম, শাহজাহান সহ আরো অনেকে জানান, সপ্তাহে তিনদিন তিনি ঝাঁড়-ফুক ও তাবিজ দেয়ার দিন ধার্য রয়েছে। এ বিশেষ দিনে অন্তত শতাধিক নারী পুরুষ তার কাছে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসেন। চুক্তিতে সে বিভিন্ন কাজের কন্টাক নেয়। কাজ না হলে সে ওই টাকা আর ফেরত দেয়না।স্ট্যাম্প দিয়ে চুক্তিতে বিভিন্ন কাজ করে দেয়ার কথা থাকলেও কাজ না হওয়ার পর টাকা ফেরৎ চাইলে তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দেয় ।
তারা আরো বলেন, সে একজন প্রতারক, ভন্ড। তার কোন শিক্ষাদীক্ষা নেই। সে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে মানুষের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তার কাছে এসে প্রতিকার পেয়েছে এমন কোন নজীর নেই।

টমটম চালক নাম প্রকাশ না করার সত্ত্বে জানান, আমার প্রবাসী বন্ধু থেকে ওর বিয়ে বন্ধ আছে বলে পাঁচ (হাজার) টাকা নিয়েছে সে। কাজ না হলে ফেরত দেওয়ার কখা থাকলে ৩ মাস পর টাকা ফেরত চাইতে গেলে হেনস্থার শিকার হয়েছে বিভিন্ন সময়ে।

এ প্রতারণার কাজে তার সাথে রয়েছে কয়েকজন সহযোগী। এসব সহযোগী শাহিনুর সাধন বৈদ্যের গুনগান গেয়ে সাধারণ মানুষকে তার কাছে নিয়ে যায়।

প্রতারণার বিষয়ে জানতে চাইলে সৈয়দ শাহিনুর সাধন বলেন,কক্সবাজার পৌরসভা থেকে লাইসেন্স নিয়ে আমি বিভিন্ন সাধারণ মানুষের সেবা করি। দুধ এবং সাপের মাধ্যমে কাজ করি। কাজ না হলে আবারও আমার কাছে আসতে বলি, কাউকে টাকা ফেরত দি না।

অপরদিকে শাহানুর সাধন বৈদ্যের এসব অবৈধ কর্মকান্ড বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

এবিষয়ে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনর্চাজ আবদুল হালিম বলেন, কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme