1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা। হ্নীলার দালাল আবছার রোহিঙ্গা নারীসহ বিমানবন্দরে আটক। জনগণের দুর্ভোগ লাগব করতে দ্রুত টেকসই সড়ক উপহার দিবো -কউক চেয়ারম্যান বিষপানে পুত্রবধূ নাসরিনের আত্মহত্যা সাংসদের ওয়ার্ডের রাস্তার ইট বিক্রি করে দিল মেম্বার! ইসলামবাদে (ব্র্যাক)আইন সহায়তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কক্সবাজারে যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে বর্বর নির্যাতন। সেনাবাহিনীর নব প্রধান হচ্ছেন এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। ঝালকাঠিতে উপায়’র মাধ্যমে ট্রাফিক মামলার জরিমানা পরিশোধে ঝালকাঠি জেলা পুলিশের চুক্তি

ঈদগাঁও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ইউএনও বরাবর মহিলা মেম্বারের অভিযোগ

  • আপডেট টাইম: Tuesday, December 15, 2020
  • 103 বার পড়া হয়েছে

মোঃ কাওছার ঊদ্দীন শরীফ।

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সৈয়দ আলমের বিরুদ্ধে প্রকল্প দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ সহ বিভিন্নভাবে এক মহিলা মেম্বারকে হয়রানি করার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে।এ ঘটনায় ১৩ ডিসেম্বর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মহিলা মেম্বার নুর জাহান ।
অভিযোগে জানা যায়, ঈদগাঁও ইউনিয়নের ১,২,৩ নং ওয়ার্ড এর মহিলা মেম্বার নুরজাহানকে বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ আলম তিন বছর যাবত পরিষদের বিভিন্ন প্রকল্প হতে বঞ্চিত করে আসছে। আবার বিভিন্ন প্রকল্পে তাকে সভাপতি করে তার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে এবং এ প্রকল্পের টাকাপয়সার ব্যাপারে কিছু জানায় না। বিজিডি, বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা এবং প্রতিবন্ধী ভাতায় মহিলা মেম্বারের নামে কোন প্রকার বরাদ্ধ দেয় না চেয়ারম্যান।সম্প্রতি জন্ম নিবন্ধন সনদের আবেদন ফরমে মহিলা মেম্বারের স্বাক্ষর দেখলে আবেদন ফরম ছিড়ে ফেলে দেয় এবং পরিষদে চেয়ারে বসতে দেয় না। পরিষদে উপস্থিত হলে ওনার চেয়ারে আরেকজন বসিয়ে রেখে অসম্মান ও নাজেহাল করতে থাকে। ২০১৭ সালে প্রকল্প দেবে বলে চেয়ারম্যান এক লক্ষ টাকা গ্রহণ করে এবং হাওলাত হিসাবেও এক লক্ষ টাকা নেয়। হাওলাদের টাকা বজল মেম্বার এর মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছে চেয়ারম্যান কে। এই টাকা ফেরত চাওয়ার পর থেকে মহিলা মেম্বারের উপর চড়াও হয়ে চেয়ারম্যান বিভিন্নভাবে হয়রানি, নাজেহাল ও মানহানিকর আচরণ করে আসছে। প্রায় সময় জনসম্মুখে খারাপ আচরণ ও হুমকি-ধামকি দিয়ে থাকে যা খুবই লজ্জাজনক। অন্যদিকে উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে বরাদ্ধ্ না দিয়ে জন রোষানলে ফেলার পাঁয়তরা করে আসছে।এ ব্যাপারে মহিলা মেম্বার নুরজাহান অভিযোগর বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, সদর ইউএনও মহোদয় আমার মত একজন নারী আমি ওনার কাছে ন্যায় বিচার পাবো বলে আমার বিশ্বাস এবং সরেজমিনে তদন্তপূর্বক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান সৈয়দ আলমের সাথে যোগাযোগে করা হলে তিনি বলেন,এ মহিলা মেম্বারকে বিভিন্ন অভিযোগের কারণে পরিষদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছি ।যার প্রমাণসহ আমার কাছে আছে । উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমাইয়া আক্তার সুইটির সাথে কথা হলো তিনি অভিযোগ পেয়েছেন এবং তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme