1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা। হ্নীলার দালাল আবছার রোহিঙ্গা নারীসহ বিমানবন্দরে আটক। জনগণের দুর্ভোগ লাগব করতে দ্রুত টেকসই সড়ক উপহার দিবো -কউক চেয়ারম্যান বিষপানে পুত্রবধূ নাসরিনের আত্মহত্যা সাংসদের ওয়ার্ডের রাস্তার ইট বিক্রি করে দিল মেম্বার! ইসলামবাদে (ব্র্যাক)আইন সহায়তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ঈদগাঁওতে লাখ লাখ টাকা মূল্যের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করছে দখলবাজরা

  • আপডেট টাইম: Saturday, December 19, 2020
  • 90 বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঈদগাঁও, কক্সবাজার
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে নদীর পাড় দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে। বাজারের সুপারি গলির শেষ প্রান্তে বাঁশঘাটা ব্রিজের বেড়িবাঁধের পূর্বে গভীর রাতে লোকচক্ষুর অন্তরালে একাজ চালাচ্ছে জনৈক ভূমিদস্যু। খবর পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, বাজারের ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ নিষেধ করলেও তা মানা হচ্ছে না।
প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের হরিপুর এলাকার জনৈক সন্তোষ কয়েক দিন আগে থেকে ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত নদী সিকস্তি জমিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করছে। জমিটি ঈদগাঁও নদীর পাড়ে অবস্থিত। বাজারের সুপারি গলির শেষ মাথায় এবং বাঁশঘাটা ব্রিজের বেড়িবাঁধের পূর্বে। এ জমিতে রড সিমেন্টের বড় ও লম্বা পিলার স্থাপনের মাধ্যমে দখল উৎসব চালিয়ে যাচ্ছে। এর অদূরে রয়েছে দখলকারীর মালিকানাধীন জমি। কখনো বন্দোবস্তী, আবার কখনো দাদার বা পৈত্রিক সম্পত্তি বলে সে এ অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় পরিবেশ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) কক্সবাজার সদর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান তারেক জানান, নদী সিকস্তি জমিতে কোন বন্দোবস্তী নেই। অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করতে দেখে আমরা তাকে নিষেধ করি। সে কাগজপত্রসহ বৈঠকে আসবে বলেও কাগজপত্র না থাকার অজুহাত দেখিয়ে বৈঠক বাতিল করে দেয়। বিষয়টি তিনি দখলকারীর স্থানীয় মেম্বার আবু বক্কর সিদ্দিক বানডীকে অবহিত করেন বলে জানান।
ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের দপ্তর সম্পাদক নাসির উদ্দিন জানান, গভীর রাতে সে দখলীয় এলাকায় রড সিমেন্টের বড় বড় পিলার স্থাপন সম্পন্ন করেছে। লোকলজ্জার ভয়ে দিনের বেলায়কোন কাজ করে না। ঐ জমিতে স্থাপনা বা দোকানঘর নির্মাণ করার জন্য সে নির্মাণ সামগ্রী মজুদ করেছে। ইতিপূর্বে সে রাতের অন্ধকারে টিন দিয়ে চতুর্পার্শ্বে জায়গাটি ঘিরে ফেলে। দখলীয় জায়গার আনুমানিক মূল্য ১০/১২ লক্ষ টাকা হবে বলে জানান এ ব্যবসায়ী নেতা। জালালাবাদ ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মোকতার আহমদ তাকে অবৈধ স্থাপনা থেকে বিরত থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ বৈঠকে বসার কথা বললেও সে কর্ণপাত করছে না। একইভাবে ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আহমদ শরীফ তাকে দখলবাজি থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সন্তোষের সাথে যোগাযোগ করলে দখলীয় জমিকে তিনি খতিয়ানী জমি দাবি করে বলেন, এক থেকে দেড় বছর পূর্বে সেখানে তার বাপ-দাদার ঘরবাড়ি ছিল। এটা খাস জমি নয়। এখানে তিনিসহ তার পিতাও ভাইরা অংশীদার বলে জানান। তবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র রয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি পরক্ষণেই বন্দোবস্তীর দোহাই দিয়ে বলেন, লিজ নিলে অসুবিধার কি আছে?, আইনি প্রক্রিয়ায় তা সম্ভব হবে। তবে জমিটি পৈত্রিক না খাস জমি তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেন নি এ প্রতিনিধিকে। একেকবার একেক কথা বলছেন। তার কথার মধ্যে ব্যাপক অসামঞ্জস্য পাওয়া গেছে। কখন, কার কাছ থেকে, কিভাবে বন্দোবস্তি নিয়েছেন? বন্দোবস্তীর নাম্বার কত? এসব জানতে চাইলে তিনি কাগজপত্র দেখেন নাই বলে জানান। তিনি আরো দাবি করেন, নিষেধকারীরা তাকে, তার মাতা ও স্ত্রীকে গালিগালাজ করেছে। হুমকি-ধমকি ও দিয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme