1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা। হ্নীলার দালাল আবছার রোহিঙ্গা নারীসহ বিমানবন্দরে আটক। জনগণের দুর্ভোগ লাগব করতে দ্রুত টেকসই সড়ক উপহার দিবো -কউক চেয়ারম্যান বিষপানে পুত্রবধূ নাসরিনের আত্মহত্যা সাংসদের ওয়ার্ডের রাস্তার ইট বিক্রি করে দিল মেম্বার! ইসলামবাদে (ব্র্যাক)আইন সহায়তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

রাজঘাট বিট অফিসের সার যায় ভোমরিয়াঘোনা সারের দোকানে মাধ্যম বিট অফিসার “ হাসান “

  • আপডেট টাইম: Saturday, December 19, 2020
  • 74 বার পড়া হয়েছে


নিজস্ব প্রতিনিধিঃঈদগাঁও,
কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের অন্তর্গত ফুলছড়ি রেঞ্জের আওতাধীন রাজঘাট বন বিট অফিসার “হাসান” এর বিরুদ্ধে সরকারি নার্সারির জন্য দেওয়া সার চুরি, গাছ চুরি, সরকারি জমি দখল করে বিক্রি সহ নানাঅপকর্মের অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।
জানাযায়, রাজঘাট বনবিটের আওতাধীন পাহাড় থেকে ৫হাজার টাকা দামের ৪/৫টা গাছ মাত্র ৪হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয় বিট অফিসার “হাসান”।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক টমটম চালক বলেন, গত কয়েক দিন আগে বিট অফিসার হাসান আমাকে সরকারী নার্সারির জন্য দেওয়া সার রাজঘাট বিট অফিসে আনার নামে কল দিয়ে ফুলছড়ি অফিসে নিয়ে যায়, ফুলছড়ি অফিস থেকে আমরা দুই টমটমে ২০বস্তা নিয়ে একটু আস্তে না আস্তেই আবার কল দিয়ে বলে ভোমরিয়া ঘোনা একটি সারের দোকানে নিয়ে যেতে, পরে আমরা ঐ সারের দোকানে নিয়ে গেলে আমাদের কে ১৫০টাকা ভাড়ার জায়গায় ৩০০টাকা করে দেয় বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য বলে।
টমটম চালক আরো বলেন, আমরা বিষয়টি রাজঘাট বিট অফিসের কয়েকজন ভিলেজার কে অবগত করলেও তারা কোন জবাব দেয় নাই।
রাজঘাট বিটের এক ভিলেজার বলেন, কিছুদিন আগেও ৫০হাজার টাকার মিনিময়ে বিট অফিসের টিলায় একটি ঘর করে দিতে চেয়েছিলো বিট অফিসার “হাসান” কিন্তু আমরা সাংবাদিকসহ বিভিন্ন দপ্তরে অবগত করলে ঘর করে দিতে ব্যার্থ হয়।
এবিষয়ে বিট অফিসার “হাসান” এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সেই প্রতিবেদক বলেন এই বিষয় আমি কিছু বলতে রাজি নয়,পরে গড়ি মসডিয়ে বলেন আমি মামলা দিচ্ছি, যখন প্রতিবেদক, মামলা নাম্বার চাইলে বলেন আপনি ডিপো কাছ থেকে জিজ্ঞেস করেন ডিপোর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ডিপো বলেন আমাদের কাছে কোন মামলা নাম্বার নেই আপনি বিট অফিসার হাচানের কাছ থেকে বিট নাম্বার নেন, আবারও বিট অফিসার হাচান সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে৷ প্রতিবেদক বিট নাম্বার চাইলে সেই বিট নাম্বার আপনাকে কেন দিবো বলে ফোন কেটে দেয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme