1. admin@coxtimes.com : admin :
শিরোনাম :
সচেতনতায় পুলিশ মাঠে…. করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়লেও ঈদগাঁওতে বাড়েনি মানুষের মাঝে সচেতনতা ঈদগাঁওর জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠ পর্যায় ইউএনও ঈদগাঁওর বাঁশঘাটায় তিনটি দোকান সিলগালা বাঁশখালী ছনুয়ার মানুষের যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা অবসানের পথে ইসলামাবা‌দের আ‌লো‌চিত জবর মুল্লুক হত্যা মামলার আসামী‌দের রিমা‌ন্ডে নি‌তে গ‌ড়িম‌সি পু‌লি‌শের ! ঈদগাঁও বাজা‌রে সড়‌কের উপর দোকান নির্মাণ, ভূ‌মি অ‌ফি‌সের নি‌ষেধাজ্ঞা ইসলামের প্রচার-প্রসারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি: শেখ হাসিনা। হ্নীলার দালাল আবছার রোহিঙ্গা নারীসহ বিমানবন্দরে আটক। জনগণের দুর্ভোগ লাগব করতে দ্রুত টেকসই সড়ক উপহার দিবো -কউক চেয়ারম্যান বিষপানে পুত্রবধূ নাসরিনের আত্মহত্যা সাংসদের ওয়ার্ডের রাস্তার ইট বিক্রি করে দিল মেম্বার! ইসলামবাদে (ব্র্যাক)আইন সহায়তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

জালালাবাদে নদী দূষণের কবলে দুর্গন্ধে ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

  • আপডেট টাইম: Thursday, February 25, 2021
  • 116 বার পড়া হয়েছে

মোঃ কাউছার ঊদ্দীন শরীফ, ঈদগাঁওঃ

জালালাবাদ ফুলছড়ি নদীর তীরে ময়লা-আবর্জনা ফেলেছে ঈদগাঁও বাজারের দশ বিশ হাজার ব্যবসায়ীরা।বৃষ্টির পানিতে এসব ময়লা-আবর্জনা নদীর পানিতে মেশায় পানি দূষিত হয়ে পড়েছে।নদী দূষণের কবলে দুর্গন্ধে ভোগান্তিতে পড়ছে পাঁচ ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকাবাসী।বুধবার ২৪শে ফ্রেব্রুয়ারী বিকালে বাঁশঘাটা ব্রিজ এর পূর্ব পাশে এলাকাবাসীর গোসল করার ঘাটে এময়লা-আবর্জনা পাহাড় দেখা যায়।

জানা যায়, কক্সবাজার সদর উপজেলা জালালাবাদ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সুপারির গলির তিন রাস্তার মোড়ে এলাকাবাসীর গোসল করার ঘাট নামক এলাকায় ফুলছড়ি নদীর তীরে দীর্ঘ বছর ধরে শহরের যাবতীয় ময়লা-আবর্জনা ডাম্পিং করছে ঈদগাঁও বাজারের প্রায় বিশ হাজার ব্যবসায়ীরা।দিনের পর দিন এলাকাবাসী বাধা দিলেও তাতে কর্ণপাত করেনি কর্তৃপক্ষ।বছরের পর বছর ধরে ময়লা-আবর্জনা ফেলায় ফুলছড়ি তীর এখন যেন ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। এতে করে ওই এলাকায় নদীতীরে দুর্গন্ধ ও নোংরা পরিবেশের সৃষ্টি হওয়ায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নদী তীরবর্তী এলাকায় বসবাসরত এলাকাবাসীসহ নৌপথের যাত্রীদের। এসব ময়লা-আবর্জনা থেকে জন্ম নিচ্ছে মশা-মাছি। বৃষ্টির পানিতে এসব ময়লা-আবর্জনা নদীর পানিতে মেশায় নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ইসলামপুর,পোকখালী,জালালাবাদ, ঈদগাঁও, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের মানুষজন। ঈদগাঁও বাজারে নিজস্ব ভাগার না থাকায় কয়েক বছর ধরে ব্যবসায়ীরা নদীর তীর ব্যবহার করে আচ্ছে। এলাকাবাসীদের অভিযোগ নদীতীর দখলের জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধির নির্দেশে চার বছর ধরে এলাকার সব ময়লা-আবর্জনা ফেলা হচ্ছে খালঘাটে ফুলছড়ি নদীর তীরে। অথচ এ ভাগারের পাশেই রয়েছে শত শত জনবসতি।প্রতিদিন খালঘাট,ভোমরিয়াঘোনা, খোদাই বাড়ী, বাঁশঘাটা,তেলিপাড়া,লরাপাক,পোকখালী,ঈদগাঁও স্টেশন বস্তিসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের এলাকার আশপাশের কয়েক কোটি’ নারী-পুরুষ গোসল করেন এখানে। এছাড়া এনদীতে নৌকায় করে প্রতিদিন ২-৩ হাজার মানুষ নদী পারাপার করেন। কিন্তু বাজারের ফেলা ময়লা-আবর্জনার গন্ধে এখানে ৫ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকাও এখন কষ্টকর।তাই ময়লা-আবর্জনার ফেলা বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Customized BY NewsTheme